বাঙালিনিউজ
নিজস্ব প্রতিবেদক
পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব তুলে ধরবেন। একইসঙ্গে তিনি বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠা, নিরাপদ অভিবাসন, ফিলিস্তিন জনগণের অধিকারসহ সাম্প্রাতিককালের আলোচিত বিষয়গুলোর ওপর জাতিসংঘে বক্তব্য রাখবেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কের উদ্দেশে রওয়ানা দেবেন। আগামী ২৩-২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জাতিসংঘের এই অধিবেশন চলবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে বাংলায় ভাষণ দেবেন।

আজ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এ তথ্য জানান। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক। জাতিসংঘ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগদান উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, সাধারণ অধিবেশনে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব তুলে ধরবেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে নারীর ক্ষমতায়ন, ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা, গণতন্ত্রের ধারা সমুন্নত রাখাসহ বাংলাদেশের অর্জিত সাফল্য বিশ্ববাসীর সামনে প্রধানমন্ত্রী তুলে ধরবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী জানান।

আজ ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘের ৭২তম সাধারণ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ৫ দফা প্রস্তাব পেশ করেছিলেন। তার ধারাবাহিকতায় এবারের অধিবেশনেও প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব তুলে ধরবেন।

মাহমুদ আলী জানান, অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ শীর্ষ পযায়ের বৈঠকে যোগ দেবেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের উদ্যোগে ‘গ্লোবাল কল অব অ্যাকশন অন ওয়ার্ল্ড ড্রাগ প্রবলেম’ শীর্ষক উচ্চ পর্যায়ের সভায় যোগ দেবেন। এছাড়া জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনারের আমন্ত্রণে শরণার্থী বিষয়ক এক সভায় ও নেলসন ম্যান্ডেলার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সভায় যোগ দেবেন।

প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্র সফরকালে নিউ ইয়র্ক প্রবাসী বাংলাদেশিদের আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্টানে যোগ দেবেন। প্রধানমন্ত্রী হোটেল গ্র্যান্ড হায়াতে যুক্তরাষ্ট্র চেম্বার অব কমার্স আয়োজিত গোলটেবিল মধ্যাহ্নভোজন বৈঠকেও যোগ দেবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, শেখ হাসিনা আগামীকাল ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কের উদ্দেশে রওয়ানা দেবেন। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট লন্ডনের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। লন্ডনে যাত্রাবিরতির পর প্রধানমন্ত্রী ২৩ সেপ্টেম্বর রোববার সকালে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে নিউ ইয়র্কের পথে রওয়ানা দেবেন।